• Mon. Nov 28th, 2022

নেটাগরিকদের কটাক্ষের শিকার এবার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়?

মাদার টেরেসার জন্মদিনে ভাগ করে নেওয়া একটি ছবি ঘিরে গত দু’দিন ধরে নেটাগরিকদের ক্ষোভ এবং কটাক্ষের শিকার হলেন টলিউডের ‘ইন্ডাস্ট্রি’ প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু কী ছিল ছবিতে, যার জন্য এমন হল? পুরনো সেই ছবি বলছে, মাদার টেরেসা এবং প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ছাড়াও সেই ছবিতে ছিলেন আরও দুই ব্যক্তিত্ব। তাঁরা হলেন অভিনেতার প্রাক্তন স্ত্রী দেবশ্রী রায় এবং রাজ্যের প্রয়াত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু। এবার নেটাগরিকদের অভিযোগ, তিনি প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে ছবি থেকে কেটে দিয়ে সেই ছবি ভাগ করে নিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা তাঁর মতো মানুষের থেকে আশা করা যায় না। অবশেষে মুখ খুললেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় নিজে। শনিবার রাতে তিনি জানান যে, মাদারের জন্মদিনে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতেই এই ছবি ভাগ করে নিয়েছিলেন তিনি। কাউকে অসম্মান করা উদ্দেশ্য তাঁর একেবারেই ছিল না।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুকে এ দিন পুরনো ছবি-সহ তাঁর জবানবন্দির একটি ফটোকপি ভাগ করে নেন এবং সেখানে ইংরেজিতে লেখেন যার তর্জমা করলে দাঁড়ায়, তিনি সাধারণত কটাক্ষের জবাব দেন না। কিন্তু এ বার জবাব দিতে বাধ্য হলেন তার কারণ, সেই ছবিতে এমন কিছু ব্যক্তিত্ব আছেন, যাঁদের তিনি অন্তর থেকে শ্রদ্ধা করেন। তিনি ছবি কাটেননি। ছবিটি কাটা বা ক্রপ করা অবস্থাতেই বেশ কিছুদিন আগে তাঁকে কেউ পাঠায়। তাই মাদারের জন্মদিনের দিন তিনি শ্রদ্ধা জানাতে ছবিটি নেটমাধ্যমে অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নেন, কাউকে অশ্রদ্ধা বা অসম্মান করতে সেই ছবি তিনি দেননি।

তিনি জবাবদিহি এখানেই শেষ করেননি। তিনি আরও জানিয়েছেন, পৃথিবী খুব কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে আর তাই আবার আগের পরিস্থিতিতে সকলকে ফিরতে গেলে সবার সহযোগিতাই অত্যন্ত জরুরি। তাই পরামর্শ দেন একে অন্যের প্রতি ভালবাসা ছড়িয়ে দেওয়ার।