• Mon. Nov 28th, 2022

বাবা-মার বিচ্ছেদই ছিল সেরা সিদ্ধান্ত মনে করেন সারা!

অভিনেত্রী সারা আলি খান আরও একবার মুখ খুললেন তাঁর বাবা সইফ আলি খান ও তাঁর মা অমৃতা সিংয়ের বিচ্ছেদ নিয়ে। তিনি জানান, একসঙ্গে সুখী ছিলেন না বাবা-মা, আর সে কারণেই বিচ্ছেদই ছিল তাঁদের কাছে সর্বশ্রেষ্ঠ সিদ্ধান্ত।

সম্প্রতি এক টক শো’য়ে গিয়ে সারা বলেছেন যে, তিনি বর্তমানে তাঁর মায়ের সঙ্গে থাকেন। তাঁর মা নাকি তাঁর প্রিয় বন্ধু। তাঁর বাবাকে যখনই দরকার হয় তাঁর তখনই তাঁকে ফোনে পান তিনি, প্রয়োজনে দেখাও করেন তিনি। বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ প্রসঙ্গে সারার সাফ জানান, তাঁরা একসঙ্গে সুখী ছিলেন না। আর সেই কারণেই বিচ্ছেদই ছিল সর্বশ্রেষ্ঠ সিদ্ধান্ত। সারা মনে করেন দম্পতির কাছে দুটি উপায় রয়েছে। প্রথম অখুশি হয়ে এক বাড়িতে সারা জীবন কাটানো, অন্যটি হল বিচ্ছিন্ন হওয়া। দ্বিতীয়টির ক্ষেত্রে সারা বলেন, ‘যখন দুজনেই দুজনের জীবনে খুশি তখন তুমি নিজেও সেই সব মানুষদের সঙ্গে দেখা করে আলাদা রকমের অভ্যর্থনা পাবে। বাবা-মা উভয়ই নিজেদের জীবনে এই মুহূর্তে বেশ সুখী। আর ওঁরা সুখী বলেই আমি ও আমার ভাই ইব্রাহিমও সুখী।‘

১৯৯১ সালে সইফের সঙ্গে বিয়ে হয় অমৃতা সিংয়ের। ২০০৪ সালে তাঁদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। ২০১২ সালে করিনা কাপুরকে বিয়ে করেন সইফ। করিনার সঙ্গেও সারার সম্পর্ক বেশ ভালই। তাঁর সৎ ভাই জেহ ও তৈমুরের সঙ্গেও ইব্রাহিম-সারার বেশ সখ্যতা। বিচ্ছেদকে স্বাভাবিক হিসেবে ধরে নিয়েই নিজেদের শর্তে বাঁচেন সারা ও তাঁর পরিবার।