• Fri. Aug 19th, 2022

স্ত্রী করিনার কী উপদেশ মেনে চলেন সইফ?

বরাবর নেটমাধ্যম থেকে নিজেকে দূরে রাখেন বলিউড অভিনেতা সইফ আলি খান। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামেতে কখনও তাঁকে দেখা যায় না। তবে তিনি জানিয়েছেন স্ত্রী করিনা কপূর খানের উপদেশ মেনেই নিজেকে এ সবের থেকে দূরে রাখেন তিনি। ট্রোলারদের লক্ষ্যের তালিকায় ‘সইফ-কারিনা’-র নাম সর্বদাই বেশ উপরের দিকে থাকে। কখনও তাঁদের দুই সন্তানের নাম, কখনও আবার তাঁর সন্তানকে \’তারকা-সন্তান\’ তকমার জন্য নানা ধরনের ট্রোল-কটাক্ষ ধেয়ে আসে তাঁদের দুজনের দিকে। এক সময় নেটমাধ্যমে তাঁকে নিয়ে কী লেখা হচ্ছে, তা নিয়মিত খোঁজ রাখতেন অভিনেতা সইফ। নিজেকে নিয়ে কোনও নেতিবাচক মন্তব্য দেখলে তাঁর মেজাজ খারাপ হয়ে যেত তখনই। সেই জন্যই করিনা তাঁকে এই নজরদারি বন্ধ করার উপদেশ দিয়েছিলেন।

এক সাক্ষাৎকারে সইফ আলি খান জানান, তিনি এখন কোনও নেতিবাচক মন্তব্য পড়েন না। তিনি নেটমাধ্যম থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছেন। আর তাতে তিনি ভাল আছেন। তিনি আরও জানান যে, গুগল করে দেখেন কবে কী বলেছিলেন তিনি। তারপর হয়তো এমন কিছু একটা পড়বেন যে, তাঁর মন খারাপ হয়ে যাবে। তখনই তাঁর স্ত্রী নাকি তাঁকে এই অভ্যাস ত্যাগ করার উপদেশ দিয়েছিলেন।

স্ত্রী করিনার কথা মেনে নিয়েছিলেন সইফ। সত্যি সত্যিই নেটমাধ্যম থেকে নিজেকে নিয়ে আর কোনও রকম খবর বা লেখা তিনি পড়েন না। তিনি মনে করেন, নেটমাধ্যমের সাহায্য নিয়ে হিংস্রতা ছড়ানো খুবই সহজ একটা বিষয়। তাই সেখান থেকে দূরত্ব বজায় রাখাই শ্রেয়।